প্রয়াগরাজ কুম্ভ গিনিস বুক অফ ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসে স্থান লাভ করেছে

Spread the love

পৃথিবীর বৃহত্তম শো কুম্ভ মেলা একটি বিশেষ বইতে জায়গা করে নিয়েছে। প্রয়াগরাজ কুম্ভমেলা  2019 এর বৃহত্তম ভিড় ব্যবস্থাপনা, বৃহত্তম স্যানিটেশন ড্রাইভ এবং সর্বজনীন চিত্রকলার  জন্য গিনিস বুক অফ ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসে স্থান লাভ করেছে।

সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে , “গিনিস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডস থেকে তিন সদস্যের একটি দল এই উদ্দেশ্যে প্রয়াগরাজ পরিদর্শন করেছিল। বৃহস্পতিবার 28 মার্চ থেকে 3 মার্চ পর্যন্ত চার দিনের জন্য দলটির সামনে বড় আকারের ব্যবস্থাপনা প্রদর্শন করা হয়। প্রায় 503 টি  শাটল বাসকে 28 শে ফেব্রুয়ারিতে হাইওয়েতে সেবা প্রদানের জন্য নামানো হয়। বেশিরভাগ মানুষই 1 লা মার্চ অঙ্কনে অংশগ্রহণ করেন। কুম্ভ মেলায় প্রায় 10,000 কর্মী পরিশ্রমে জড়িত ছিল।

14 জানুয়ারি শুরু হওয়া এই উৎসবটি 4 ই মার্চ তারিখে মহা শিবরাত্রি উপলক্ষে ষষ্ঠ এবং চূড়ান্ত “শাহী স্নান” (রাজকীয় স্নান) নিয়ে শেষ হয়।

মন্ত্রক জানায়, গত পাঁচটি শাহী স্নানে সফলভাবে 22 কোটি তীর্থযাত্রী পবিত্র ডুব দিয়েছেন।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি 2019 সালের কুম্ভের “অভূতপূর্ব” সংগঠনের জন্য উত্তরপ্রদেশ সরকারকে অভিনন্দন জানান এবং বলেন, উত্তরপ্রদেশ সরকার   “সংস্কৃতি ও আধ্যাত্মিকতার শ্রেষ্ঠত্ব প্রদর্শন করেছে”।

প্রধানমন্ত্রী মোদী ট্যুইট করে বলেন, “সমগ্র উত্তরপ্রদেশবাসীকে অভিনন্দন, বিশেষ করে প্রয়াগরাজকে”। মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের অধীনে সমগ্র প্রশাসনের কাজ প্রশংসা করেন।

50 দিনের দীর্ঘ ধর্মীয়, আধ্যাত্মিক ও সাংস্কৃতিক সম্মেলনের শেষ হওয়ার একদিন পর তিনি এই মন্তব্য করেন।  প্রয়াগরাজ  কুম্ভ সম্পর্কে তিনি বলেন, “এই কুম্ভ আমাদের সংস্কৃতির শ্রেষ্ঠত্ব, আধ্যাত্মিকতা প্রদর্শন করেছে এবং আগামী অনেক বছর ধরে এটি মনে রাখা হবে।”

তিনি বলেন, “সবচেয়ে বেশি মানুষ এখানে পরিচ্ছন্নতার জন্য নিয়োজিত ছিলেন যেটা একটা রেকর্ড। এছাড়াও পরিবহন ও শিল্প ক্ষেত্রে রেকর্ড স্থাপিত হয়েছে। কুম্ভ প্রশাসনের জন্য প্রযুক্তির ব্যবহারও প্রশংসনীয় ছিল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *