কর্তারপুর করিডোর নিয়ে ভারত ও পাকিস্তান এই সপ্তাহে দেখস করবে

Spread the love

জইশ-এ-মহম্মদের পুলওয়ামা হামলা এবং পরবর্তীতে বালাকোটে এয়ার স্ট্রাইকের পর ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে সাম্প্রতিক উত্তেজনার মধ্যেও কর্তারপুর করিডোর নিয়ে আলোচনা চলবে।

ভারত বলেছে, কার্তারপুর করিডোরের প্রকারতা নিয়ে পাকিস্তানের সাথে প্রথম বৈঠক হবে মার্চের 14 তারিখ ভারতের আত্তারি-ওয়াঘা বর্ডারে।

এই ঘোষনার একদিন আগেই পাকিস্তান ঘোষণা করে, 14 মার্চ করিডোরের খসড়া চুক্তি নিয়ে আলোচনা করার জন্য একটি প্রতিনিধিদল তারা ভারতে পাঠাবে, যাতে গুরুদুয়ারা কর্তারপুর সাহিবে শিখ পর্যটকদের ভিসা-মুক্ত যাতায়াত সহজতর করা যেতে পারে।

পররাষ্ট্র বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতিতে বলা হয়, 14 মার্চ কর্তারপুর করিডোর নিয়ে আলোচনা ও চূড়ান্তকরণের জন্য ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে প্রথম বৈঠক হবে আত্তারি-ওয়াঘা সীমান্তের ভারতীয় খন্ডে।

এতে বলা হয়, বৃহস্পতিবার গুরুনানকের 550 তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে কর্তারপুর করিডোরটি বাস্তবায়নের জন্য সরকারী সিদ্ধান্তে বৈঠক করা হচ্ছে । যাতে দীর্ঘদিন ধরে জনসাধারণের চাহিদা অনুযায়ী গুরুদুয়ারা কর্তারপুর সাহিব এ সহজে এবং মসৃণ প্রবেশাধিকার সম্ভব হয়।

এমইএ জানায়, “এই প্রস্তাবটির পাশাপাশি করিডোরের সারিবদ্ধকরণ সম্বন্ধে প্রযুক্তিগত স্তরের আলোচনার কথাও একই দিনে ভারত প্রস্তাব করেছে”।

শিখ ধর্মের প্রতিষ্ঠাতা গুরু নানক দেব এর অন্তিম বিশ্রামস্থল -পাকিস্তানের কর্তারপুরের গুরুদুয়ার দরবার সাহেব থেকে ভারতের গুরুদাসপুর জেলার ডেরা বাবা নানক মন্দিরের চূড়া পর্যন্ত একটা সীমান্ত সংযোগের ব্যাপারে ভারত ও পাকিস্তান সহমত হয়েছে।

কর্তারপুর সাহিব, রবি নদীর পার্শ্ববর্তী নারোয়াল জেলার অবস্থিত। ডেরা বাবা নানক মন্দির থেকে যেটা চার কিলোমিটার দূরে ।

করিডোরটি ভারতের শিখ পর্যটকদের কর্তরপুরের গুরুদুয়ারা দরবার সাহিবে
ভিসা-মুক্ত ভ্রমণ সহজতর করবে। নভেম্বর মাসে গু্রু নানক এর 550 তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে পাকিস্তান এই করিডোরটি উন্মোচন করার অঙ্গীকার করেছে।

গত বছর 26 নভেম্বর ভারতের ভাইস প্রেসিডেন্ট এম ভেঙ্কাইয়া নাইডু এবং পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী অমরিন্দর সিং গুরুদাসপুর জেলায় কার্তারপুর করিডোরের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন।

দুই দিন পর, পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান লাহোর থেকে 125 কিলোমিটার দূরে নারোওয়ালে করিডোরের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *