আমেরিকার মানবাধিকার খাশোগী হত্যামামলার উপর প্রতিবেদন পেশ করেছে

Spread the love

তুরস্কে আরব দূতাবাসে ওয়াশিংটনের পোষ্ট সাংবাদিক জামাল খাশোগির হত্যার ঘটনার কথা সংযুক্ত আরব আমিরশাহি অস্বীকার করেছে। যার ফলে এই কেসে ধোয়াশা আরও বেড়ে গেছে।

সৌদি মানবাধিকার কমিশনের প্রধান, বন্দর আল-আইবান, জেনেভায় জাতিসংঘের মানবাধিকার কাউন্সিলকে জানান যে, মৃত সাংবাদিকের এই কেসের জন্য করনীয় সব কিছুই সরকার করেছে।

তার বক্তব্যে আল-আইবান বলেন, খাশোগী মামলায় তিনটি বৈঠক হয়েছে এবং সৌদি আরব “খাশোগী মামলার আন্তর্জাতিককরণের বিষয়ে কোনো বক্তব্য রাখতে প্রত্যাখ্যান করছে।”

আল-আইবান আন্তর্জাতিক মিডিয়াতে দাবি করে বলেন যে সৌদি আরবে কোন গোপন আটক কেন্দ্র নেই, তারা আইন লঙ্ঘন করেছে এবং জাতিসংঘের সুপারিশগুলি সৌদি নিয়মের বিরুদ্ধে ছিল।

তিনি আরও বলেন যে আরব কোয়ালিশন আন্তর্জাতিক মানবাধিকার আইনের প্রতি অঙ্গীকারবদ্ধ।

যাদিও, যুক্তরাষ্ট্রের স্টেট ডিপার্টমেন্ট অ্যানুয়াল গ্লোবাল মানবাধিকারের প্রতিবেদনটি এই সপ্তাহের শুরুতে প্রকাশিত হয়েছিল যেখানে জানা গেছে যে ইস্তাম্বুলে সৌদি দূতাবাসের অভ্যন্তরে থাকাকালীন সরকারের এজেন্টরা খাশোগীকে হত্যা করেছিল। সৌদি বাদশাহ প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমান এই হত্যার জন্য নির্দেশ দেন, ইন্টেলিজেন্স এজেন্সি আর আইন প্রণেতাদের এই বিশ্বাস সত্ত্বেও, প্রতিবেদনটি এটা উল্লেখ করতে ব্যর্থ হয়েছিল যে এই হত্যার জন্য কে দায়ী।

অ্যাসোসিয়েটেড প্রেসের মতে, এই প্রতিবেদনটি আরও উল্লেখ করেছে যে এই হত্যাকাণ্ডটি সেই সব উদাহরণের মধ্যে একটি যেখানে “সরকার বা তার এজেন্টরা বিধিবহির্ভূত বা বেআইনী হত্যার সাথে জড়িত” এবং দেশের মধ্যে “শাস্তি মুক্ত পরিবেশ” তৈরি করায় অবদান রাখে।

এটি সৌদি আরবে অন্যান্য মানবাধিকার লঙ্ঘনের উল্লেখও করেছে, যার মধ্যে রয়েছে কমপক্ষে 20 জন বিশিষ্ট ইউমেন্স রাইটস কর্মীর গ্রেফতার হওয়া, অহিংস অপরাধের জন্য মৃত্যুদণ্ড, জোরপূর্বক অন্তর্ধান এবং বন্দীদের উপর অত্যাচার। রিপোর্টে রাজতন্ত্রের কিছু লাভ উল্লেখ করা হয়েছে, যার মধ্যে প্রথমবারের মত মহিলারা ভোট দেওয়ার এবং পৌর নির্বাচনে প্রার্থী হিসাবে ভোটে দাঁড়ানোর জন্য অনুমতি দেওয়া হয়।

খাশোগী ভার্জিনিয়াতে স্বনির্ধারিত নির্বাসনে বসবাস করতেন, কারণ তিনি সৌদি সরকারের মুখ্য রাজকীয় নেতা, ডে ফ্যাক্টর নেতার অধীনে সমালোচনামূলক কলাম লিখেছিলেন। 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *