গবেষণায় দেখা যাচ্ছে, প্রকৃতির সাথে কাটানো মাত্র 20 মিনিট সময় ধকল কমাতে সাহায্য করে

Spread the love

একটি গবেষণায় বলা হয়েছে যে, দিনের মধ্যে কমপক্ষে বিশ মিনিট ঘুরে বেড়ালে বা এমন জায়গায় বসে থাকলে যেখানে প্রকৃতির সাথে আপনার একটা যোগাযোগ স্থাপিত হয় তা আপনার স্ট্রেস হরমোন মাত্রাকে উল্লেখযোগ্যভাবে কমিয়ে দেয়। এটি এমন একটি গবেষণার সন্ধান যা প্রথমবারের মতো একটি শহুরে প্রকৃতি অভিজ্ঞতার সবচেয়ে কার্যকর ডোজ স্থাপন করেছে। ফ্রন্টিয়ার্স ইন সাইকোলজি তে  প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুযায়ী চিকিতসকেরা এই আবিষ্কারটি ব্যবহার করতে পারেন, কারণ এটা ‘প্রাকৃতিক টোটকা’ যার প্রকৃত পরিমাপযোগ্য প্রভাব আছে ।

“আমরা জানি প্রকৃতিতে সময় কাটালে ধকল কমে যায়, কিন্তু এখনও পর্যন্ত এটি স্পষ্ট ছিল না যে কতটুকু যথেষ্ট, কতটুকু করতে হয়, এমনকি কোন ধরণের প্রকৃতির অভিজ্ঞতা আমাদের উপকৃত করবে,” বলেছেন অ্যাসোসিয়েট প্রফেসর ডঃ মেরি ক্যারল হান্টার, মিশিগান বিশ্ববিদ্যালয় এবং এই গবেষণার প্রধান লেখক। “আমাদের গবেষণায় দেখা যায় যে সর্বশ্রেষ্ঠ লাভ পাওয়ার জন্য, স্ট্রেস হরমোন কর্টিসোলের মাত্রা কমিয়ে দেওয়ার শর্তে আপনাকে 20 থেকে 30 মিনিট সময় এমন স্থানে কাটাতে বা হাঁটাতে হবে যা আপনাকে প্রকৃতির অনুভূতি দেয়।”

প্রাকৃতিক টোটকাগুলি, ক্রমবর্ধমান নগরীকরণ এবং ঘরের ভিতরে স্ক্রীনের দিকে তাকিয়ে থাকা জীবনে, নেতিবাচক স্বাস্থ্যের প্রভাবগুলিকে হ্রাস করার জন্য কম খরচের সমাধান হয়ে উঠতে পারে।চিকিৎসকদের প্রমানভিত্তিক নির্দেশিকা প্রদান করার উদ্দেশ্যে হান্টার ও তার সহকর্মীরা একটি গবেষণার নকশা তৈরি করেন যা একটা কার্যকর ডোজের বাস্তবসম্মত অনুমান দেবে।

8-সপ্তাহের সময়ের মধ্যে, অংশগ্রহণকারীদেরকে 10 মিনিট বা তার বেশি সময়, সপ্তাহে কমপক্ষে 3 বার এই প্রাকৃতিক টোটকা নিতে বলা হয়। প্রাকৃতিক টোটকার পূর্বে এবং পরে নেওয়া লালা নমুনা থেকে কর্টিসোলের পরিমাপ করা হয়েছে প্রতি দুই সপ্তাহ একবার।

হান্টার ব্যাখ্যা করেন “অংশগ্রহণকারীদের দিন, সময়কাল এবং তাদের প্রকৃতির অভিজ্ঞতার জায়গা বেছে নেওয়ার স্বাধীনতা দেওয়া হয়েছিল। স্ট্রেসকে প্রভাবিত করার জন্য কয়েকটি সীমাবদ্ধতা দেওয়া ছিল: দিনের আলোতে প্রাকৃতিক টোটকা নেওয়া , কোনও অ্যারোবিক ব্যায়াম না করা এবং সোশ্যাল মিডিয়া, ইন্টারনেট, ফোন কল, কথোপকথন এবং বই পড়া বন্ধ রাখা। “।

তিনি অব্যাহত রেখেছেন, “পরীক্ষাটিতে ব্যক্তিগত পছন্দের মাধ্যমে তৈরি করা, যাতে আমাদেরকে এই প্রকৃতির টোটকার সর্বোত্তম সময় সনাক্ত করার সুযোগ দেয়, যা কোন স্থান-কাল এবং আধুনিক জীবনের স্বাভাবিক অনিশ্চিত পরিস্থিতি এবং ব্যস্ত সময়সূচীর উপর নির্ভরশীল নয় ।”

ব্যস্ত জীবনযাত্রার জন্য মধ্যে অর্থপূর্ণ ফলাফল প্রদান করার জন্য এই গবেষনার নকশা খুবই মূল্যবান ছিল।

হান্টার বলছেন, “প্রাকৃতিক টোটকার কারণে কর্টিসোলের পরিবর্তনের চার স্ন্যাপশট সংগ্রহ করে আমরা এই দিনগুলিতে অংশগ্রহণকারীদের স্ট্রেসের প্রতিদিনের পার্থক্যকে নথিভুক্ত করেছি। এটা আমাদের সাধারণ ভাবে কর্টিসোলের মাত্রা হ্রাস পাওয়ার ঘটনাটি মাথায় রেখে কার্যকরী সময়কাল নির্ধারন করতে সাহায্য করেছে।’

তথ্যটি প্রকাশ করে যে মাত্র 20 মিনিটের প্রাকৃতিক অভিজ্ঞতা কোর্টিসোলের মাত্রা কমাতে যথেষ্ট। কিন্তু যদি আপনি প্রকৃতির অভিজ্ঞতায় নিমজ্জিত একটু বেশি সময় কাটান, 20 থেকে 30 মিনিট বসা বা হাঁটা, করটিসোল মাত্রাগুলি তাদের সর্বশ্রেষ্ঠ হারে নেমে যায়। তারপরে ধীরগতিতে অতিরিক্ত ডি-স্ট্রেসিং বেনিফিট যোগ করতে থাকে ।

হান্টার বলছেন, “হেলথ কেয়ার প্র্যাকটিসনাররা এই প্রমাণ-ভিত্তিক ফলাফলকে ব্যবহার করে কিভাবে প্রাকৃতিক টোটকাকে প্রেসক্রাইব করতে হবে তা নির্ধারন করতে পারেন।” 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *