অগাস্টা অয়েস্টল্যান্ড কান্ডে অভিযুক্ত দাবী করলেন, তিনি চুক্তি সম্বন্ধীয় কারোর নাম করেননি

Spread the love

সংবাদ সংস্থা পিটিআই জানিয়েছে, গুরুত্বপূর্ণ আগস্ট ওয়েস্টল্যান্ড কেলেঙ্কারীতে গ্রেফতার হওয়া মধ্যস্থতাকারী ক্রিশ্চিয়ান মাইকেল দিল্লি আদালতকে জানিয়েছেন, তিনি চার্জশিট দাখিলকারী এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটের তদন্তের সময় চুক্তির বিষয়ে কারো নাম উল্লেখ করেননি।

মাইকেল অভিযোগ করেছেন যে কেন্দ্রীয় সরকার রাজনৈতিক কর্মসূচির জন্য এজেন্সিগুলিকে ব্যবহার করছে। ইডি-র দাখিল করা চার্জশীট অভিযোগপত্রে, আগের ইউপিএ সরকারের প্রতিরক্ষা কর্মী, আমলা এবং সাংবাদিকদের নাম বিতর্কিত প্রতিরক্ষাচুক্তির সুবিধাভোগী পরিবেশিত হওয়ার পর মাইকেল আদালতে এই আবেদনটি করেন।

বিশেষ জজ অরবিন্দ কুমারের কাছে আবেদন পেশ করতে মাইকেলের আইনজীবী হাজির হন। তিনি তদন্ত সংস্থার কাছে নোটিশ জারি করেন এবং শনিবার এজলাসে এই প্রশ্নের জবাব চেয়েছেন।

তার পরামর্শক আলজো কে জোসেফ বলেন , “মিডিয়াতে যে বিবৃতি ফাঁস হয়েছে তেমন কোনো নাম মাইকেল এজেন্সীর কাছে করেননি। এই বিষয়টিই আমার ক্লায়েন্টের বিরুদ্ধে মামলাটিকে উত্তেজনাপূর্ণ এবং পক্ষপাতদুষ্ট করার জন্য তৈরি করা হয়েছে “।

তিনি দাবি করেন, বৃহস্পতিবার দাখিল করা চার্জশিটটির অনুলিপি মাইকেলকে প্রদান করার আগে মিডিয়াকে সরবরাহ করা হয়েছিল।

কোর্টে স্বাক্ষরিত হওয়ার আগেই চার্জশিট প্রচারমাধ্যমের কাছে কীভাবে ফাঁস হয়ে যায় তা নিয়ে তিনি প্রশ্ন করেছেন।

এই আবেদনে বলা হয়েছে, বিচারকের নির্ণীত বিচার এবং স্বাধীন ও ন্যায্য বিচারের অধিকারকে, প্রচারমাধ্যমের অধিকার বিঘ্নিত করছে। তাই বিচারের অধিকারকে প্রাধান্য দিতে আদালত সাময়িকভাবে প্রচারমাধ্যমের আধিকারকে হ্রাস করতে পারে।

“আদালতের এই ভারসাম্য বজায় রাখা কর্তব্য। মুক্ত ও নিরপেক্ষ সওয়াল জবাব নিশ্চিত করার জন্য আদালতকতৃক অস্থায়ীভাবে মিডিয়ার স্বাধীনতা হ্রাস করা যেতে পারে। ”

আরও বলা হয়েছে যে চার্জশিট দাখিল করার সময় অভিযুক্ত মাইকেল চার্জশিটের কপি চেয়েছিলেন। তবে ইডি কর্তৃপক্ষ এর বিরুদ্ধে জানায় যে আদালত এখনো চার্জশীট স্বাক্ষর করে গ্রহণ করেননি।

আবেদনে দাবী করা হয়েছে “এই আদালত এখনো চার্জশিট যখন গ্রহণ করতে পারেনি তখন মনে করা হচ্ছে যে ইডি গোপনভাবে প্রচারমাধ্যম কাছে চার্জশীটের একটি কপি সরবরাহ করেছে যা কেবলমাত্র ইস্যুটিকে উদ্দীপিত করার জন্য প্রচারমাধ্যমগুলি কয়েক কিস্তিতে প্রকাশ করছে এবং আদালতের নজরদারি নেওয়ার আগেই, বিবিধ অভিযুক্তদের নাম প্রকাশ করে পক্ষপাতিত্বের চেষ্টা করেছে।

এতে বলা হয়েছে, অভিযোগপত্রের নির্বাচন করা কিছু অংশই প্রচারমাধ্যম দ্বারা প্রকাশিত হয়েছে, যা পরিষ্কার করে দেয় যে ইডি আইনের আদালতে ন্যায্য বিচারে আগ্রহী নয় বরং মিডিয়ার বিচারে আগ্রহী।

“ইডি বিচারবিভাগীয় প্রক্রিয়াকে কৌতুকে পরিনত করছে যার ফলে বিচারব্যবস্থা বিঘ্নিত হয়েছে। প্রত্যর্পণ চুক্তিতে রাজনৈতিক অপরাধে জড়িত অভিযুক্তদের প্রত্যর্পণ নিষিদ্ধ করা হয়েছে এবং সরকার এখন রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপূরণে ইডি এবং সমস্ত তদন্তসংস্থাগুলিকে ব্যবহার করছে। গণমাধ্যমকে চার্জশিট সরবরাহ করা এর সবচেয়ে ভাল উদাহরণ “।

আবেদনটি জানায়, মামলাটি দায়ের করা নথিগুলোর উপর আদালত নজরদারি না করলেও পুরো মামলাটিকে আবার প্রচারমাধ্যমের মধ্যে উত্তেজনা সৃষ্টি করার জন্য প্রচারমাধ্যমকে চার্জশিট সরবরাহ করেছিল।

“প্রসিকিউটিং এজেন্সির কার্যকলাপ অত্যন্ত মর্মান্তিক এবং আইনের দ্বারা প্রতিষ্ঠিত পদ্ধতির বিপরীতে। এখানে উল্লেখ করা হচ্ছে যে, প্রসিকিউটর সংস্থা সরকারের হাতের অস্ত্র হিসাবে কাজ করছে এবং গণমাধ্যমের বিচারের জন্য প্রচারমাধ্যমগুলিকে দলিলগুলিকে গোপন উদ্দেশ্যে সরবরাহ করা হচ্ছে”।

এই আবেদন আরো দাবি করে যে, এই ধরনের প্রতিকূল মন্তব্য অন্য দেশের নাগরিক হিসাবে মাইকেলের মুক্ত এবং ন্যায্য বিচারের অধিকারকে হ্রাস করতে পারে।

বৃহস্পতিবার ইডির আদালতে বলা হয়েছে যে এই প্রতিরক্ষা চুক্তিতে মাইকেল ও অন্যান্য অভিযুক্তরা 4 কোটি ২0 লাখ ইউরো পেয়েছে।

ডেভিড সিমস, মাইকেলের কথিত ব্যবসায়িক অংশীদার এবং তাদের মালিকানাধীন দুটি সংস্থা হল গ্লোবাল ট্রেড অ্যান্ড কমার্স লিমিটেড এবং গ্লোবাল সার্ভিসেস এফজেডই । তিনি
তদন্ত সংস্থাটির 3,000-পৃষ্ঠার সম্পূরক চার্জ শীটে অভিযুক্ত হয়েছেন।

গত বছরের ডিসেম্বরে দুবাই থেকে ধরে আনা মাইকেল, তিনটি মধ্যস্থতাকারীর মধ্যে একজন। ইডি ও সিবিআই এর দায়েরকৃত মামলায় এছাড়াও গুইডো হ্যাশকে এবং কার্লো গেরোসা আছেন।

2014 সালের 1 জানুয়ারি, চুক্তির বাধ্যবাধকতা লঙ্ঘন এবং 423 কোটি টাকার ঘুষের অভিযোগে, ভারতীয় এয়ারফোর্সকে 12 এডব্লিউ -101 ভিভিআইপি হেলিকপ্টার সরবরাহ করার জন্য ইটালির ফিনমেকানিকার ব্রিটিশ সহায়তাকারী সংস্থা অগাস্টা ওয়েস্টল্যান্ডের সঙ্গে চুক্তিটি বাতিল করে দিয়েছে ভারত।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *