মুম্বাইতে ভোট গ্রহণের সম্পন্ন হয়েছে, ভোটাররা VVPATs এর প্রতি আশাবাদী

Spread the love

লোকসভা নির্বাচন চলছে এবং প্রায় শেষ হতে চলেছে। সোশ্যাল মিডিয়া ও ইন্টারনেট প্রচারের মাধ্যমে এই নির্বাচন এক অন্য মাত্রার উৎসাহ দেখেছিল। কিন্তু এই নির্বাচনের আরেকটি বিশেষত্ব হল VVPATs।

সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে প্রতিটি বিধানসভা কেন্দ্রের পাঁচটি ভোটকেন্দ্রে যথেচ্ছভাবে কাগজ ট্রেল মেশিনের স্লিপের সাথে ইভিএম এর ফলাফল মিলিয়ে দেখা হবে, এই পরীক্ষাটি লোকসভা নির্বাচনে 10.35 লক্ষ ভোট কেন্দ্রের মধ্যে 20,600 টি কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত হবে।

যদিও বিভিন্ন বিধানসভা নির্বাচনে কাগজের ট্রেল মেশিনের স্লিপের সাথে ইভিএম এর ফলাফলের মিলিয়ে দেখা হয়েছিল, তবে লোকসভা নির্বাচনে এটি প্রথমবারের মত অনুষ্ঠিত হতে চলেছে।

পিটিআই জানায়, এখনও পর্যন্ত, পেপার অডিট ট্রেল চেক প্রতিটি বিধানসভা কেন্দ্রে লটারির মাধ্যমে নির্বাচিত মাত্র একটি ভোটকেন্দ্রে সম্পন্ন হয়েছে, যদিও VVPAT মেশিন সমস্ত পোলিং স্টেশনগুলিতেই স্থাপন করা হয়েছে।

নির্বাচন কমিশনের ভারপ্রাপ্ত এক আধকারিক পিটিআইকে জানান, “যদিও ইভিএম ফলাফল গণনা হওয়ার পরেই প্রার্থীরা ফলাফল জানাতে পারেন তবে সরকারি ঘোষণায় দুই থেকে তিন ঘণ্টা দেরী হবে।”

তিনি বলেন, ইসিআই যদি যথেচ্ছভাবে ফলাফল মেলানোর জন্য পাঁচটি পৃথক দল নিয়োগ করতে সক্ষম হয় তাহলে ফলাফল ঘোষণা করার ক্ষেত্রে দেরী হবে না।

ভারতে 4,120 টি বিধানসভা আসন রয়েছে। এখন পাঁচ গুণ করলে হয় 20,600। বিধানসভা কেন্দ্রের 20,600 টি ভোটকেন্দ্রে পেপার অডিট ট্রেল চেক সম্পন্ন হবে।

অফিসার বলেন, “প্রতিটি ভোট কেন্দ্র ভোটার সংখ্যা 800 থেকে 2,500 এর মধ্যে ঘোরাফেরা করে।”

কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল্গুলি যেমন চণ্ডীগড়, দমন ও দীউ, লক্ষাদীপ, আন্দামান ও নিকোবর, এবং দাদরা ও নগর হাভেলিতে কোনও স্টেট অ্যাসেম্বলি নেই, তাই পাঁচটি ভোট কেন্দ্র যথেচ্ছভাবে নির্বাচিত হয়েছে।

পার্টিগুলি EVM কে দোষারোপ করায়, পোল প্যানেল এই ব্যপারে যথেষ্ট সতর্ক ছিল।

সিস্টেম থেকে জানা যায় কয়েকটি জায়াগার গণনা পুনরায় করার জন্য দাবী করা হয়েছে, কিন্তু তা ফলাফলকে বিলম্বিত করবে।

2014 সালে প্যানেল দেশে প্রায় 9.28 লক্ষ ভোটকেন্দ্র স্থাপন করেছিল, কিন্তু এই বছর সংখ্যাটা প্রায় 10.35 লক্ষ- অর্থাৎ 10.1 শতাংশ বৃদ্ধি।

এই ভোটকেন্দ্রগুলিতে প্রায় 39.6 লক্ষ ইভিএম এবং 17.4 লক্ষ VVPAT মেশিন ব্যবহার করা হবে।

ভোট হয়ে যাওয়ার পর, প্রার্থীর উপস্থিতিতে লটারির মাধ্যমে VVPAT স্লিপ এবং ইভিএম এর ফলাফল মিলিয়ে দেখা হয়।

VVPAT মেশিন হলো এমন একটি মেশিন যেখানে একজন ব্যক্তি যে দলের হয়ে ভোট দিয়েছেন সেই দলের প্রতীক সমেত একটি স্লিপ অন্য একটি বাক্সে জমা পড়ে। এই স্লিপটি
ছোট একটি উইন্ডোতে সাত সেকেন্ডের জন্য দেখা যায় এবং তারপর ওই নির্ধারিত বাক্সে জমা পড়ে যায়। কোনও ভোটার এটি নিয়ে বাড়ি যেতে পারবেন না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *